মিয়ানমার সেনাবাহিনীর পক্ষে সমর্থন ভারতের নগ্নভূমিকার প্রকাশ


ইমন আহমেদ

Published: 2017-10-15 09:51:16 BdST | Updated: 2018-11-17 21:05:48 BdST

রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর ওপর গণহত্যা, জাতিগত নির্মূল অভিযান ও জোর করে বাংলাদেশে ঠেলে দেয়ার ব্যাপারে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর অবস্থানকে সমর্থন করছে বাংলাদেশের কথিত বন্ধুদেশ ভারত।

রাখাইনে জাতিগত নির্মূল অভিযান শুরু হওয়ার পর ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি মিয়ানমার সফর করে দেশটির অবস্থানে পূর্ণ সমর্থনই শুধু দেননি, পরবর্তী সময়েও ধারাবাহিকভাবে মিয়ানমারকে সমর্থন দিয়ে যাচ্ছেন। এমনকি মিয়ানমারের সবচেয়ে ঘনিষ্ঠ দেশ হিসেবে পরিচিত চীনের চেয়ে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর নীতির প্রতি ভারতের সমর্থন আরো নগ্নভাবে প্রকাশ পাচ্ছে।

এর সর্বশেষ উদাহরণ হচ্ছে ভারতে আশ্রয় নেয়া মিয়ানমারের রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে পুশইন করছে ভারতের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বর্ডার সিকিউরিটি ফোর্স (বিএসএফ)। গত তিন সপ্তাহে অন্তত ৫৭ রোহিঙ্গা সদস্যকে সীমান্ত দিয়ে সাতক্ষীরায় পুশইন করা হয়েছে।

গত শুক্রবার সাতক্ষীরার হিজলদী সীমান্ত দিয়ে ১৮ রোহিঙ্গা সদস্যকে পুশইন করা হয়। বাংলাদেশে পাঠিয়ে দেয়া রোহিঙ্গা সদস্যদের মধ্যে বেশির ভাগই শিশু ও নারী। গণমাধ্যমে খবর এসেছে, আরো বহু রোহিঙ্গা সদস্য সাতক্ষীরা সীমান্ত অতিক্রম করার অপেক্ষায় রয়েছে। তাদেরও সুবিধাজনক সময়ে বাংলাদেশে পুশইন করতে সচেষ্ট রয়েছে বিএসএফ।

6

রোহিঙ্গারা মিয়ানমারের নাগরিক। ভারত সরকার যদি তাদের ফেরত পাঠাতে চায়, তাহলে মিয়ানমার সরকারের সাথে আলোচনা করে পূর্ণ নাগরিক অধিকার নিশ্চিত করে তাদের আবাসস্থলে ফেরত পাঠাতে পারে। কিন্তু তাদেরকে বাংলাদেশে পাঠানোর মাধ্যমে রোহিঙ্গারা বাংলাদেশের নাগরিক বলে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর দাবিকে যে ভারত সমর্থন দিচ্ছে, এটি তার প্রমাণ।

বাংলাদেশের বর্তমান ক্ষমতাসীন সরকার ভারতের সব ধরনের নিরাপত্তা, অর্থনৈতিক ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে সমর্থন দেয়ার পরও দেশটি বাংলাদেশের বিরুদ্ধে প্রকাশ্য অবস্থান নিয়েছে। শুধু তা-ই নয়, জাতিসঙ্ঘসহ আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় যখন রোহিঙ্গাদের জাতিগত নির্মূল অভিযানের বিরুদ্ধে মিয়ানমার সেনাবাহিনীর বিচারের দাবিতে সোচ্চার হয়ে উঠছে, তখন ভারতের এই অবস্থান শুধু দুর্ভাগ্যজনক নয়Ñ নিপীড়নকারীদের পক্ষে অবস্থান নেয়ার শামিল।

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যের নির্যাতিত রোহিঙ্গারা বিভিন্ন সময় সীমান্ত পাড়ি দিয়ে ভারতে প্রবেশ করে। প্রায় ৪০ হাজার রোহিঙ্গা ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে অবস্থান করছে। এদের মধ্যে ১৬ হাজার রোহিঙ্গা জাতিসঙ্ঘের নথিভুক্ত শরণার্থী। সেখানে তারা নানা প্রতিকূলতা ও চরম দারিদ্র্যের মধ্যেই বসবাস করছেন। এখন ভারত সরকার তাদের ফেরত পাঠাতে চায়। এ নিয়ে ভারতের উচ্চ আদালতে একটি মামলা বিচারাধীন আছে।

এমন পরিস্থিতিতে রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশে ঠেলে পাঠানো অত্যন্ত ন্যক্কারজনক ও আন্তর্জাতিক আইনের লঙ্ঘন। আমরা মনে করি, বাংলাদেশ সরকারের উচিত ভারতের এই আচরণের প্রতিবাদ করা। রোহিঙ্গাদের উচ্ছেদে মিয়ানমার সেনাবাহিনীকে সমর্থন জানানোর জন্য রোহিঙ্গাদের দায় এড়িয়ে যেতে পারে না ভারত।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


মুক্তমত বিভাগের সর্বাধিক পঠিত


বিগত কয়েক বছরে বাংলাদেশে ধারাবাহিকভাবে অতি দারিদ্র হার কমেছে। মূলত শিক...

মুক্তমত | 2017-09-28 22:41:27

সারাদেশে ধর্ষণ এখন নিত্যদিনের ঘটনা। বর্তমান সময়ে টেলিভিশন, সংবাদপত্রসহ...

মুক্তমত | 2018-03-07 19:56:28

দেশের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর নাম পুলিশ। জনগণের জানমালের নিরাপত্ত...

মুক্তমত | 2018-02-26 11:26:06

অনেককেই দেখা যায় গ্র্যাজুয়েশন শেষ করেও চাকুরী হয় না। অনেকে লিখিত পরীক্...

মুক্তমত | 2017-10-03 17:39:28

বাংলাদেশের অর্থনীতির বিবর্তন সত্যি বিস্ময়কর। পাকিস্তান আমলের শোষণ, বঞ্...

মুক্তমত | 2017-10-22 09:23:56

মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গাদের মধ্যে তিন লাখেরও বেশি...

মুক্তমত | 2017-10-13 09:01:56

বিশ্বখ্যাত সাপ্তাহিক দি ইকোনমিস্ট সম্প্রতি বাংলাদেশের মাথাপিছু আয় বিষয়...

মুক্তমত | 2017-09-29 12:38:01

মানব জাতির শিল্প চৈতন্য বোধ ও মনুষ্যত্ব বোধ বা মানুষের মানুষ ছাড়া অন্য...

মুক্তমত | 2018-03-05 11:32:36